Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

একঅবস্থানেসেবা

বরিশাল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সদর দপ্তর ও গৌরনদী জোনাল অফিসের এক অবস্থানে সেবাপয়েন্টে এ নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ ,বিদ্যুৎ বিভ্রাট/বিল/মিটার সংক্রান্ত অভিযোগ,বিল পরিশোধের ব্যবস্থা সহ সকল ধরনের অভিযোগ জানানো যাবে এবং এতদসংক্রান্ত বিষয়ে তথ্য পাওয়া যাবে ।

 

নতুনসংযোগগ্রহন

এক অবস্থানে সেবা  পয়েন্ট থেকে নতুন সংযোগের আবেদনপত্র পাওয়া যাবে । আবেদনটি যথাযথ ভাবে পূরণ করে নির্ধারিত আবেদন ফি সহ সমিতির ক্যাশ শাখায় জমা প্রদান করলে একটি নিবন্ধন b¤^i সহ পরবর্তী আগমনের তারিখ জানানো হবে ।

পরবর্তী আগমনের তারিখে যোগাযোগ করলে আপনাকে ডিমান্ড নোট ও প্রাক্কলন ইস্যূ করা হবে । সমিতির ক্যাশ শাখায় ডিমান্ড নোটের উল্লেখিত টাকা জমা প্রদান করলে ১৫ ( পনের ) দিনের মধ্যে গ্রাহকের আঙ্গিনায় মিটার ও সংযোগের ব্যবস্থা করা হবে । যদি সংযোগ প্রদান সম্ভবপর না হয় তবে তার কারন জানিয়ে আপনাকে একটি পত্র দেয়া হবে ।

পরবর্তী মাসের বিলিং সাইকেল অনুযায়ী গ্রাহকের প্রথম মাসের বিল জারী করা হবে ।

বিলসংক্রান্তঅভিযোগ

 

বিল সংক্রান্ত যে কোন অভিযোগ যেমন - চলতি মাসের বিল পাওয়া যায়নি,বকেয়া বিল,অতিরিক্ত বিল ইত্যাদির জন্য এক অবস্থানে সেবাপয়েন্ট এ যোগাযোগ করলে তাৎক্ষনিক সমাধান সম্ভব হলে তা নিস্পত্তি করা হবে । অন্যথায়,একটি নিবন্ধন b¤^i দিয়ে পরবর্তী যোগাযোগের সময় জানিয়ে দেয়া হবে এবং পরবতী ৭ (সাত) দিনের মধ্যে নিস্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

বিলপরিশোধ

সমিতির ক্যাশ শাখা/নির্ধারিত ব্যাংক এ গ্রাহক বিল পরিশোধ করতে পারবেন ।

বিদ্যুৎবিভ্রাটেরঅভিযোগ

 

অত্র পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সংশ্লিষ্ট এলাকার নির্দিষ্ট অভিযোগ কেন্দ্রে আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অভিযোগ জানানো হলে আপনাকে অভিযোগ b¤^i ও নিস্পত্তির সম্ভ্যাব্য সময় জানিয়ে দেয়া হবে । অভিযোগ b¤^‡ii ক্রমানুসারে আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাট দূরীভূত করার লক্ষ্যে ২৪ ঘন্টার মধ্যে নিস্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে । কোন কোন ক্ষেত্রে যদি নির্ধারিত সময়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট দূরীভূত করা সম্ভব না হয় ,তবে তার কারন গ্রাহককে অবহিত করা হবে ।

নতুনসংযোগেরজন্যদলিলাদি

নতুন সংযোগের জন্য আবেদন পত্রের সাথে নিম্নোক্ত দলিলাদি দাখিল করতে হবেt-

  • সংযোগ গ্রহনকারীর পাসপোর্ট সাইজের ২ কপি সত্যায়িত রঙিন ছবি ।
  • মালিকানা দলিলের সত্যায়িত কপি ।
  • জমির/বাড়ীর দলিল অথবা দাগ b¤^i, খতিয়ান b¤^i ।
  • লোড চাহিদার পরিমান ।
  • জমি/ভবনের ভাড়ার (যদি প্রযোজ্য হয়) দলিল ।
  • ভাড়ার ক্ষেত্রে মালিকের সম্মতি পত্রের দলিল ।
  • পূর্বের কোন সংযোগ থাকলে ঐ সংযোগের বিবরণ ও সর্বশেষ পরিশোধিত বিলের কপি ।
  • সংশ্লিষ্ট সমিতির প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত গ্রাম বিদ্যুৎবিদ KZ…©Kপ্রদত্ত ওয়্যারিং সার্টিফিকেট ।
  • ট্রেড লাইসেন্স ( প্রযোজ্য ক্ষেত্রে )
  • শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের নিমিত্তে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন।
  • পাওয়ার ফ্যাক্টর ইমপ্রুভমেন্ট প্লান্ট স্থাপন ( শিল্পের ক্ষেত্রে )
  • সার্ভিস লাইন এর দৈর্ঘ্য ১০৫ ফুটের বেশী হবে না ।
  • বহুতল আবাসিক/ বানিজ্যিক ভবন নির্মাতা ও মালিকের সাথে ফ্ল্যাট মালিকের চুক্তিনামার সত্যায়িত কপি ।

৫০ কিঃ ওঃ এর উর্দ্ধে সংযোগের জন্য গ্রাহককে আরও যে দলিলাদি দাখিল করতে হবে t

* উপকেন্দ্রে স্থাপিত সব যন্ত্রপাতির স্পেসিফিকেশন ও টেষ্ট রেজাল্ট এবং বৈদ্যুতিক উপদেষ্টা ও প্রধান বিদ্যুৎ পরিদর্শকের দপ্তর থেকে প্রদত্ত উপকেন্দ্র সংক্রান্ত ছাড়পত্র ।

শিল্প কারখানা ও ৬ তলার অধিক ভবনে সংযোগের জন্য গ্রাহককে আরও যে দলিলাদি দাখিল করতে হবেঃ

  • পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ( প্রযোজ্য ক্ষেত্রে )

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সএর ছাড়পত্রের কপি।